বুয়েটে ভর্তি পরীক্ষা উপলক্ষে আন্দোলন দু্ই দিন শিথিল

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) ১৪ অক্টোবরের ভর্তি পরীক্ষাকে সামনে রেখে দুই দিন আন্দোলন শিথিলের ঘোষণা দিয়েছেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। ১৩ ও ১৪ অক্টোবর আন্দোলন কর্মসূচি শিথিল থাকবে। এর ফলে ১৪ অক্টোবর নির্ধারিত তারিখে বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

আজ শনিবার বেলা আড়াইটার দিকে বুয়েটের শহীদ মিনারের সমাবেশ থেকে এ ঘোষণা দেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। তাঁরা বলেন, বুয়েট প্রশাসন ইতিমধ্যে আন্দোলনকারীদের ৫ দফা দাবি মেনে নিয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। এটা আন্দোলনের প্রাথমিক বিজয়। এ কারণে ১৩ ও ১৪ অক্টোবর চলমান আন্দোলন শিথিল করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তাঁরা আশা করেন, এই সময়ের মধ্যে সব দাবি মানার সিদ্ধান্ত দৃশ্যমান করবে বুয়েট প্রশাসন।

৫ দফা দাবির বিষয়ে অগ্রগতি হচ্ছে বলে মন্তব্য করেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। তাঁদের ৫ দফা দাবিগুলো হলো—হত্যাকারীদের বুয়েট থেকে আজীবন বহিষ্কার করা হবে এ মর্মে নোটিশ দেওয়া, সাংগঠনিক রাজনীতি নিষিদ্ধের জন্য অবৈধ ছাত্রদের সিট বাতিল করা, সাংগঠনিক অফিস সিলগালা করা, ফাহাদের মামলার খরচ দেওয়ার নোটিশ দেওয়া ও ভিন্নমত দমানোর নামে নির্যাতন বন্ধে প্রশাসনের সক্রিয় ভূমিকা নিশ্চিত করা এবং এ ধরনের ঘটনা প্রকাশে একটি কমন প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে সব হলের সিসিটিভির ফুটেজে সার্বক্ষণিক মনিটরিং করা।

আন্দোলনকারীরা বলেন, তাঁদের পাঁচ দফা দাবি মেনে নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বুয়েট কর্তৃপক্ষ আজ দুপুরে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। হত্যাকাণ্ডে জড়িত সবাইকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে এবং পরে অভিযোগপত্রে যাঁদের নাম আসবে, তাঁদের স্থায়ীভাবে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার করার দাবিও কর্তৃপক্ষ মেনে নিয়েছে। বুয়েটে সব রাজনৈতিক সংগঠন এবং এর কার্যক্রম নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে বিভিন্ন হলে অবৈধ ছাত্রদের দখলে থাকা কক্ষ সিলগালা করা হয়েছে। হলে হলে সিসিটিভি ফুটেজ লাগানোর কাজ চলছে। আর বুয়েটে র‌্যাগের নামে নির্যাতনের ঘটনাসংক্রান্ত অভিযোগ প্রকাশের জন্য একটি ওয়েব পোর্টাল তৈরির ব্যাপারে কাজ শুরু হয়েছে। তবে এতে কিছুটা সময় লাগবে বলে মনে করেন শিক্ষার্থীরা। তবে ১০ দফা দাবিতে আন্দোলন চলবে।

English

Protesters have announced two days of relaxation in front of the October 5 admission test at Bangladesh Engineering University (BUET). Movement programs will be relaxed on October 9 and 9. As a result, BUET admission test will be held on the scheduled date of October 5th.

The protesting students made the announcement from the rally at BUET’s Shaheed Minar at around 2:30 pm on Saturday. They said the BUET administration has already issued a notification acknowledging the protestors’ demands of the clause. This is the initial victory of the movement. Due to this, it was decided to relax the ongoing movement on October 9 and 9. They expect the BUET administration to make a decision to comply with all demands during this time.

Protesters say the October 5 admission test for BUET. We want the admission test to be conducted seamlessly. We do not want to take responsibility for the test. With this, they added, the Prime Minister has confidence. Thanks also to VC Sir. As the demand for implementation began, the movement slowed down. This decision is part of ensuring the safety of the examiners.

Protesters commented that progress was being made on the demand for that point. Their three-point demands were that the murderers be issued a life sentence from BUET, canceling illegal student seats for organizing organizational politics, sealing the organizational office, giving notice of the costs of the Fahd case and confirming the administration’s active role in stopping the dissent. And CCTV footage of all the halls using a common platform to report such incidents Continuous monitoring on

Protesters said they accepted the five-point demand and formally issued a notification to BUET authorities at noon today. All those involved in the killings have been temporarily expelled, and the authorities have also demanded that those whose names will appear in the charge sheet be permanently expelled from the university. All political organizations and their activities are banned in BUET.

As part of this, the occupied rooms of illegal students have been sealed. If so, the CCTV footage is in the works. And the work on creating a web portal has been launched to release the incidental allegations of torture in the name of racket in BUET. But the students thought it would take some time. But the movement will be in demand for that point.

Author: somaiya

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *